Time Machine - the 4th Dimension
BD Trade Blogs
> Blogs > কবিতা > অন্য কোনোখানে

অন্য কোনোখানে


অসীম তরফদার

কিছ্ধুসঢ়;ই ভালো লাগে না আজকাল
মন বসে না কাজে, কেমন অস্থির লাগে শুধু !
ঘন কুয়াশা ফিকে হয়ে গেলে
মাঘী পূর্ণিমার রাত স্তব্ধ-নিঝুম !
হঠাৎ সেলফোন বেজে ওঠে
আমি রিসিভ করে হ্যালো বলার আগেই
ও প্রান্ত থেকে কাবেরী বলে ওঠে-
বলো তো কী হয়েছে তোমার !
কল করলে রিসিভ করো না,
মেসেজ পাঠালে দাও না উত্তর;
কী এমন হয়েছে তোমার-
সবকিছু থেকে নিজেকে রেখেছো দূরে !
শুনেছি ইদানিং তুমি ভীষণ উদাসীন ;
ভুলতে কি পেরেছো নিজেই,
তবু আমাকে কেনো বলো !
কেনো যে এমন পাগলামী করে মেয়েটি !
আমার ধৈর্যের তো সীমা আছে ;
এভাবে দোলালে পাথরই গলে যায়
আর আমি তো মানুষ-
আমার ভেতর আছে প্রাণ, আছে নির্মোহ ভালোবাসা।
কাবেরী, সব জেনেও এমন কেনো করো !
কাবেরীর কণ্ঠে কান্না বেজে ওঠে-
এমন কেনো হলো ? ছিলো কী এমন দোষ ?
আমার তো পাওয়ার কথা ছিলো
তোমার পূর্ণিমা থেকে জোছ্ধসঢ়;না ভেজানো সুখ
বর্ষায় এতটুকু ছাউনি
শীতে হৃদয়ের পূর্ণ উষ্ণতা,
বসন্তে একটি লাল ফুল আর
গ্রীষ্মের খাঁ খাঁ দুপুরে এক টুকরো ছায়া।
তবু স্বপ্নগুলো হঠাৎ কেনো ফেরারী ?
সকালের কেতকীর বন
বিমর্ষ সন্ধ্যায় বিবর্ণ বিরান মাঠ !
যে চোখে থাকবার কথা ঝলমলে হাসি
সে চোখে কেনো মেঘ নেমে আসে,
থেমে থেমে বৃষ্টি হয়
ছলাৎ ছলাৎ জলে ঝাপসা হয় স্বপ্ন-সীমানা !
কাবেরী, আমার দেহেও দ্রোহ আছে, দাহ আছে
আছে সুপ্ত কামনার ঢেউ ;
আমার বুকেও প্রেম আছে, যন্ত্রণা আছে
আছে রাগ ক্ষোভ দুঃখ অভিমান,
আমার হৃদয় জুড়ে আকুতি আছে

আছে ভাঙা-গড়া, তৃষ্ণা, ক্রন্দন ;
আমার বুকেও জ্বলে কষ্টের অনল
পোড়ে বসত-বাড়ি, স্বপ্নের সবুজ মাঠ ;
প্রতিকূল স্রোতের টানে আমার বুকেও পাড় ভাঙে
পহাড়ে ঝর্ণা নামে, ফসলের মাঠ ভেসে যায়;
তবু তোমার ডাক শুনে হয়ে থাকি বধির
পাথরের মতো স্তব্ধ নির্বিকার ভাবলেশহীন !
আর দুঃস্বপ্নের মতো ভয়ঙ্কর বাস্তবতায়
জোছ্ধসঢ়;নার ঢাল বেয়ে হেঁটে যাই আরণ্যক-অন্ধকারে।
কাবেরী, হয়ত এ জনমে নয়-
নয় এই পৃথিবীতে,
মৃত্যুহীন ভালোবাসার টানে
হয়তো আবার আমাদের দেখা হবে-অন্য কোনোখানে ;
মিলিত স্রোতের মোহনায় আসবে নতুন প্লাবন
একীভূত হৃদয়ের অঙ্গনে ফুটবে
গোলাপ, চাঁপা, হাসনাহেনা আর
অজস্র স্বপ্ন-কুসুম।


সাহিত্য >> কবিতা